পেঁয়াজকলির গুণে বদলে যেতে পারে আপনার জীবন

শীতকালের সবজি বললে প্রথমেই উঠে আসে ফুলকপি, বাঁধাকপি আর কড়াইশুঁটির নাম। তারপর আর একটু ভাবলে মাথায় আসে বিট, গাজর, ধনেপাতার নাম। কিন্ত পেঁয়াজকলির কথা আমরা কখনই সেভাবে ভেবে দেখি না। কারণ আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যাঁরা খেতে বসে পেঁয়াজকলি পাতে পড়লেই মুখটাকে বেঁকিয়ে ফেলি।

কিন্ত জানেন কি, যে পেঁয়াজকলি দেখে আপনি মুখ বেঁকান সেই পেঁয়াজকলির কত খাদ্যগুণ রয়েছে? হলফ করে বলা যায়, একবার যদি জেনে যান পেঁয়াজকলি খেলে কি কি উপকার হবে আপনার, তবে তারপর থেকে পাতে পেঁয়াজকলি পড়লে আপনার মুখটা আর বেঁকবে না। পেঁয়াজকলির গুণে বদলে যেতে পারে আপনার জীবন।

পেঁয়াজকলি হল চাইনিজ রান্নার একটি গুরুত্বপূর্ণ সবজি। এটা ছাড়া যে কোনও চাইনিজ খাবারই প্রায় অসম্পূর্ণ বলা যেতে পারে। আর চাইনিজরা রান্নায় এই বিশেষ বস্তুটি ব্যবহার করেন। তার কারণ হল এর মধ্যে রয়েছে অনেক ধরনের পুষ্টিকর উপাদান।

পেঁয়াজকলির মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান। যা আমাদের যে কোনও পাকস্থলি, লিভার কিংবা ইউরিন ইনফেকশন রোধ করতে কাজ করে।

[rpi]

এছাড়া শরীরের কোনও জায়গা কেটে গেলে রক্তপাত বন্ধ করতে এবং সেই ক্ষত অংশকে জীবাণু মুক্ত করতেও পেঁয়াজকলি দারুণভাবে কাজ করে। টাইফয়েড সারাতেও পেঁয়াজকলি ভীষণ উপকারি। এছাড়া পেঁয়াজকলির মধ্যে আছে অ্যান্টি-পাইরেটিক উপাদান যা জ্বর বা সর্দি কাশির মতো রোগকে আপনার থেকে দূরে রাখে।

এমনকী ত্বককে উজ্জ্বল রাখতে, ঘামের গন্ধ রোধ করতেও পেঁয়াজকলি অব্যর্থ। এছাড়াও শরীরের নানা রকম ব্যথা বেদনা কমাতেও এটি ভীষণরকম সহায়ক। তাই ব্যথায় সময় পেঁয়াজকলি খেলে তা মাথাব্যথা। হাড়ের যে কোনও রকম ব্যথা বা অন্য কোনও ব্যথা দ্রুত কমতে সাহায্য করে।

আর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হল পেঁয়াজকলির মধ্যে রয়েছে প্রছুর পরিমানে সালফার, যা ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে এবং আপনার ব্লাড সুগার লেভেলকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। এছাড়াও পেঁয়াজকলির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে। যা আপনার হজম শক্তি বাড়ায় এবং আপনাকে সুস্থ ও স্বাস্থ্যোজ্বল রাখতে সাহায্য করে।

About Pronoydeb

Leave a Reply